মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৮:০৮ অপরাহ্ন

২৮ বছর ধরে নীরবে দাঁড়িয়ে আছে শহীদ মিনার: দেখার কেউ নেই!

নতুন বাংলার সংবাদ
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ১১ মার্চ, ২০২১
  • ৩৫৯ বার দেখা হয়েছে

রাশেদুল ইসলাম রাশেদ।। মহান ভাষা শহীদদের স্মরণে কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার বড়ভিটা উচ্চ বিদ্যালয়ে নির্মিত শহীদ মিনারটি অযত্নে-অবহেলায় এখন বেহাল দশায় পরিণত হয়েছে। শহীদ মিনারটির মূল ভিত্তিটিই নড়বড়ে হয়ে পড়েছে। এর বেদীর পলেস্তরগুলো উঠে গেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে,উপজেলার বড়ভিটা উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠ প্রাঙ্গনে ১৯৯৩ সালে বিদ্যালয়ের অর্থায়নে শহীদ মিনারটি নির্মাণ করেছিলেন ওই বিদ্যালয়ের তৎকালীন প্রধান শিক্ষক আব্দুল মজিদ সর্দার । প্রতিষ্ঠার পর আর কোনো সংস্কার করা হয়নি শহীদ মিনারটির। এদিকে শহীদ মিনারের পাশেই রয়েছে একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং ইউনিয়ন পরিষদ ভবন।

এ বিষয়ে বড়ভিটা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ শরীফ উদ্দিন মিয়া মুঠোফোনে জানান,শহীদ মিনারটি সংস্কার করার পরিকল্পনা মাথায় আছে। বিদ্যালয়ের নতুন ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে, ভবনের কাজ সম্পন্ন হলে শহীদ মিনারের কাজ করা হবে। এতদিন থেকে কেন পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয় নি? এমন প্রশ্নের জবাবে প্রধান শিক্ষক করোনার অজুহাতকে কাজে লাগিয়ে বলেন,করোনায় স্কুল বন্ধ,স্কুলের কালেকশন নাই! ছাওয়া নাই! তাই কাজ করা হয় নি । তিনি আরো বলেন, সাধারণত ২১ শে ফেব্রুয়ারি এলে চুনটুন দিয়ে, ফুলটুল দেয়া হয় শাহীদ মিনারে।

বড়ভিটা উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি এবং বড়ভিটা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান খয়বর আলী মিয়ার মুঠোফোনে সাংবাদিক পরিচয়ে কল করা হলে এলজিএসপি’র প্রকল্পের বরাদ্দ থেকে শহীদ মিনারটির কাজ দ্রুত সম্পন্ন করবেন বলে তিনি আশ্বাস দেন।

এদিকে ছাত্রলীগ নেতা রাজিন আহমেদ রাহি এবং এলাকাবাসী জোড় দাবি করে বলেন, সংস্কার নয়- পুনঃনির্মাণ করতে হবে শহীদ মিনারটির।

আপনার মন্তব্য লিখুন

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2017 notun-bdsangbad
Design & Developed by RJ Ranzit
themesba-lates1749691102