সোমবার, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ১১:৪৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
“বঙ্গবন্ধুর বাংলায় বৈষম্যের ঠাই নাই” বেতন বৈষম্য নিরসনে লালমনিরহাটে মানববন্ধন সাংবাদিক রণেশ মৈত্রের মরদেহে ডেপুটি স্পিকারের শ্রদ্ধাঞ্জলি লালমনিরহাটে ক্যাবে’র মতবিনিময় সভা লালমনিরহাটে পূজামণ্ডপ পরিদর্শনে নেপালের রাষ্ট্রদূত ঘনশ্যাম ভান্ডারী লালমনিরহাটের প্রতিবন্ধীদের মাঝে হুইল চেয়ার বিতরণ আমবাড়ীতে শ্রমিক লীগের আয়োজনে শেখ হাসিনার জন্মদিন পালন নভেম্বরে জাপান সফরে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে লালমনিরহাটে রক্তদান কর্মসূচী ইডেন ছাত্রলীগ সভাপতি-সম্পাদকের বিরুদ্ধে মামলা তদন্তের নির্দেশ শেখ হাসিনা বহির্বিশ্বেও অন্যতম সেরা রাষ্ট্রনায়ক : রাষ্ট্রপতি

১০ জনের বাংলাদেশ রুখে দিলো ভারতকে

বাংলার সংবাদ ডেস্ক।।
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ৪ অক্টোবর, ২০২১
  • ২৪৯ বার দেখা হয়েছে

সাম্প্রতিক ফর্ম কিংবা দলীয় শক্তি সব দিক থেকেই বাংলাদেশের চেয়ে এগিয়ে ভারত। তবু প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে হারানোর আত্মবিশ্বাসটাই দারুণভাবে কাজে লাগালেন জামাল ভূঁইয়ারা। তবে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের বিপক্ষে শতভাগ সফল না হলেও, মূল্যবান এক পয়েন্ট ঠিকই আদায় করে নিয়েছে বাংলাদেশ।

১০ জনের দল নিয়েও ভারতকে আটকে দিল বাংলাদেশ ফুটবল দল। ১-১ গোলে ড্র নিয়ে মাঠ ছেড়েছে লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা।

সোমবারের (৪ অক্টোবর) ম্যাচটিতে প্রথম থেকেই দারুণ খেলছিল বাংলাদেশ। আক্রমণ পাল্টা আক্রমণে সুনীল ছেত্রীদের প্রতিরক্ষাব্যুহ কাঁপিয়ে দিচ্ছিল তারা। তবে ম্যাচের বয়স যত বেড়েছে, আক্রমণের ধার তত শানিয়েছে ভারত।

প্রথম সুযোগটা পেয়েছিল বাংলাদেশই। ষষ্ঠ মিনিটে দলীয় কাণ্ডারি জামাল ভূঁইয়ার পাস থেকে বাম পায়ের লং রেঞ্জ শট নিয়েছিলেন ইয়াসিন আরাফাত। কিন্তু সেটি পোস্টের বাম পাস দিয়ে চলে যায় বাইরে। পরে ম্যাচের ২৫ মিনিটের সময় বিপলু আহমেদের ক্রস থেকে পাওয়া বলে ডি-বক্সের মাঝামাঝি দাঁড়িয়ে ডান পায়ের শট নেন জামাল। কিন্তু সেটিও ছিলৎ লক্ষ্যভ্রষ্ট।

ঠিক পরের মিনিটেই গোল হজম করে বাংলাদেশ। ম্যাচের ২৭ মিনিটের মাথায় উদান্ত সিং-এর দুরন্ত পাস থেকে ভারতকে লিড এনে দেন দলীয় কাপ্তান সুনীল ছেত্রী। ১-০ গোলে এগিয়ে যায় ভারত। আন্তর্জাতিক ফুটবলে সুনীলের এটি ৭৬তম গোল।

তবে ভারতের এগিয়ে যাওয়ার পরও গোল শোধে মরিয়া চেষ্টা ছিল বাংলাদেশের। কিন্তু অধরা গোলের দেখা পায়নি তারা। এদিকে, প্রথম গোলের পর ম্যাচের ৩৭ মিনিটের মাথায় আবারও ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ পেয়েছিল সুনীল ছেত্রীরা। বক্সের বাইরে থেকে দূরপাল্লার একটি শট নেন ভারত কাপ্তান। তবে এ যাত্রায় বলটি বাঁচাতে ভুল করেননি বাংলাদেশের কিপার আনিসুর রহমান জিকো।

বিরতির আগে সমতা ফেরানোর দুর্দান্ত সুযোগ এসেছিল বাংলাদেশ দলের সামনে। সাদ উদ্দিনের পাস ডি-বক্সের মধ্যে ফাঁকায় পেয়েছিলেন বিপলু। কিন্তু তার গোলরক্ষক বরাবর নেওয়া শটে কাজের কাজ কিছুই হয়নি, বেড়েছে হতাশা। ফলে পিছিয়ে থেকেই যেতে হয়েছে বিরতিতে।

বিরতির পর দেড় মিনিটের মাথায় দুই কার্ড খেল বাংলাদেশ। প্রথমে রাকিব হলুদ কার্ড দেখেন, এরপরই বড় দুঃসংবাদ। লাল কার্ড দেখেন বিশ্বনাথ ঘোষ। এমনিতেই এক গোলে পিছিয়ে তার ওপর দশজন নিয়ে খেলতে হয়েছে দলকে। বাংলাদেশ পরপর দুই কার্ড দেখলেও মতিন মিয়াকে ফাউল করেও ভারতের খেলোয়াড়রা কোনো কার্ড না দেখায় প্রশ্ন উঠছে।

দশজনের দল নিয়েও লড়াকু বাংলাদেশ। বীরদের দমায় কে? ৭৪ মিনিটে অদম্য বাংলাদেশকেই দেখলো মালদ্বীপ জাতীয় স্টেডিয়াম। জামালের কর্নার। রাকিবের মাথা ছুঁইয়ে বল গেল, অরক্ষিত ইয়াসিনের কাছে। পাওয়ার হেডার এই ডিফেন্ডারের। বাংলাদেশের গ্যালারিতে গোলের উৎসব। বাকি সময় আর সমতা ভাঙতে পারেনি কোনও দল।

আপনার মন্তব্য লিখুন

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2017 notun-bdsangbad
Design & Developed by RJ Ranzit
themesba-lates1749691102