বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৮:৪৭ পূর্বাহ্ন

সুন্দরগঞ্জে ২৭২ পরিবারে জমিসহ গৃহ হস্তান্তর

নতুন বাংলার সংবাদ
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ২৩ জানুয়ারী, ২০২১
  • ১০৫ বার দেখা হয়েছে
ছবি: সংগৃহীত

গাইবান্ধা প্রতিনিধি ।। গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার ২’শ ৭২ পরিবারকে জমি ও ২ কক্ষ বিশিষ্ট সেমিপাকা গৃহ হস্তান্তর করা হয়েছে।

শনিবার সারাদেশের সঙ্গে সংযুক্ত রেখে এসব পরিবারে জমি ও গৃহের দলিল হস্তান্তর করে উপজেলা প্রশাসন। এ উপলক্ষে সকালে উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে ইউএনও মোহাম্মদ-আল-মারুফ’র সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন- উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আশরাফুল আলম সরকার, উপজেলা প্রকৌশলী আবুল মনছুর, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা ওয়ালিফ মন্ডল, ইউপি চেয়ারম্যান নজমুল হুদা, এসআই সেলিম রেজা প্রমূখ।

শেষে মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে ভূমি ও গৃহ প্রদান (আশ্রায়ণ-২ প্রকল্প)’র আওতায় এসব গৃহহীন পরিবারকে জমি ও গৃহের দলিল হস্তান্তর করা হয়।

প্রতিটি পরিবারের জন্য গৃহ নির্মাণ খরচ ১ লাখ ৭১ হাজার টাকা করে মোট ২’শ ৭২ পরিবারের জন্য ৪ কোটি ৬৫ লাখ ১২ হাজার টাকা। সুন্দরগঞ্জ পৌরসভা ও উপজেলার ১৫টি ইউনিয়নের মধ্যে এ পর্বে সুবিধাপ্রাপ্ত হলো বামনডাঙ্গা ইউনিয়নে ৭৩, সোরারায় ৯, সর্বানন্দে ৩৬, রামজীবনে ৫৭, ধোপাডাঙ্গায় ১৮, শান্তিরামে ৪২, কি বাড়িতে ২৭, শ্রীপুরে ৬ ও পৌরসভায় ৪টিসহ মোট ২’শ ৭২টি গৃহহীন পরিবার। অনুষ্ঠানে সহকারী কমিশনার (ভূমি) শাকিল আহমেদ, বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, গণমাধ্যমকর্মী, জনপ্রতিনিধিসহ সুশিল সমাজের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

ভূমি ও গৃহহীন পরিবারে জমি ও গৃহের দলিল হস্তান্তর অনুষ্ঠানে উপস্থিত উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান শফিউল আলম ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান উম্মে সালমাকে অবজ্ঞা করে আসন ও বক্তব্য দানের সুযোগ না দেয়ায় অনুষ্ঠান বর্জন করেন। এনিয়ে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে ভাইস চেয়ারম্যান শফিউল আলম বলেন, আমি কি বাড়ি ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারন সম্পাদক পাশাপাশি উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান। অমি কোন হাইব্রিড নই।

বাংলাদেশ আ’লীগের রাজনীতি করেই আসছি। অথচ, আজকে এই অনুষ্ঠানে এমন পরিস্থিতির স্বীকার হয়ে অনুষ্ঠান শেষের আগেই লজ্জায় বের হয়ে আসতে হয়েছে। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান উম্মে সালমা বলেন, আমি উপজেলা কৃষক লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক। আমার স্বামী সভাপতি। তাছাড়া, পারিবারিক ও আত্মীয়-স্বজনদের মধ্যেও বাংলাদেশ আ’লীগের রাজনীতিতে অন্তর্ভুক্ত।

আ’লীগের দুর্দিনেও আমরা রাজপথেই ছিলাম, আছি, ভবিষ্যতেও থাকবো। তাছাড়া, জনপ্রতিনিধি হিসেবে জনগণের নিকট দায়বদ্ধ রয়েছি। অথচ, এ ধরণের অনুষ্ঠানে জনসম্মুখেই আমাদেরকে অবমাননা করা মেনে নেয়ার মত নয়। তাই, আগেই অনুষ্ঠান বর্জন করতে হয়েছে।

এ ব্যাপারে কথা হলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ আল-মারুফ বলেন, সাড়ে ৯টায় অনুষ্ঠান শুরু করা হয়। সে সূত্রে সময় ছিল মাত্র ৪০-৪৫ মিনিট। সময় সংকীর্ণতা ও অনুষ্ঠানে বক্তব্য পর্ব সংকোচন করায় এমন কিছু হতে পারে। যা অনিচ্ছকৃত। তবে, ভবিষ্যতে সে বিষয়ে খেয়াল রাখব।

আপনার মন্তব্য লিখুন

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2017 notun-bdsangbad
Design & Developed by RJ Ranzit
themesba-lates1749691102