বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:২৮ অপরাহ্ন

সরলখাঁ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠের বেহাল দশা চরম ভোগান্তিতে এলাকাবাসী

স্টাফ রিপোর্টার ।।
  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ৩১ আগস্ট, ২০২১
  • ১৪৩ বার দেখা হয়েছে

লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলার সরলখাঁ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠ বেহাল দশায় পরিনত হয়ে পড়েছে। প্রধান শিক্ষকের নেই কোন ভুমিকা। এতে চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে এলাকাবাসীসহ করোনাকালীন সাজেশন নিতে আসা শিক্ষার্থীদের। অথচ এই স্কুল মাঠ সংস্কার করার জন্য কয়েকবার বাজেট হলেও তা সংস্কার হয়নি।

জানা গেছে, স্কুলের কমিটি বিলুপ্ত হওয়ার পর থেকেই স্কুলের সমস্ত কাজকর্ম প্রধান শিক্ষক নিজেই তার মন মতো করে আসছে। স্কুলের পুরো মাঠ পর্যন্ত রাস্তার বেহাল দশায় চলাচলে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন এলাকার শত শত মানুষ।

বৃষ্টির পানিতে পুরো মাঠ পানি ভর্তি হয়ে আছে, নেই কোন পানি নিস্কাশনের রাস্তা। মাঠ প্রাঙ্গনে পড়ে আছে বালুর খামাল এসব প্রধান শিক্ষক রশিদুল আলম দেখেও না দেখার ভান করে থাকেন বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর। অথচ এই স্কুল মাঠ সংস্কার করার জন্য কয়েকবার বাজেট হলেও তা সংস্কার হয়নি। স্কুল মাঠ সংস্কারের নামে বরাদ্দের টাকা লুটপাট করা হয়েছে।

সরলখাঁ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বর্তমান দৃশ্য।


স্থানীয় আব্দার আলী বলেন, স্কুলের কোন নিয়ম শৃংখলা নেই, নেই কোন কার্যক্রম। আমরা স্থানীয়রা এ বিষয়টি নিয়ে প্রধান শিক্ষককে বার বার বলেছি। তিনি আমাদের কথার কোন গুরুত্বই দেয়নি। অথচ এই স্কুল মাঠ সংস্কার করার জন্য কয়েকবার বাজেট হয়েছিল। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোনো সংস্কার হয়নি।

একই এলাকার আতিকুল ইসলাম বলেন, স্কুলের মাঠে পরিবেশ থাকতে হবে, কিন্তু পরিবেশ তো দুরের কথা, এটা এখন রোয়া লাগানোর জমিতে পরিনত হয়েছে। আমরা স্কুল মাঠ সংস্কারের জন্য স্থানীয় জনপ্রতিনিধির শরণাপন্ন হলেও কোনো প্রতিকার পাচ্ছি না। আমাদের চলাচলের রাস্তার করুণ অবস্থা কিন্তু দেখার কেউ নেই।

এলাকার শফিকুল ইসলাম, নামদার আলী ও রাবেয়া বেগম জানান, দীর্ঘদিনেও আমাদের যাতায়তের রাস্তা স্কুল মাঠটি উন্নয়ন ও সংস্কার করা হয়নি। তাই আমরা গ্রামবাসীরা নিজেই টাকা কালেকশন করে ট্রাকে করে মাটি এনে চলাচলের রাস্তা ভালো করছি। কারন এই স্কুল মাঠ দিয়েই আমাদের একমাত্র চলার পথ। আমরা এলাকাবাসী একাধিকবার প্রধান শিক্ষককে মাঠের বিষয়টি অবহিত করলেও তিনি কোন পদক্ষেপ নিচ্ছে না।

এ বিষয়ে সরলখাঁ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রশিদুল আলম এর সাথে মুঠোফোনে কথা বললে তিনি বলেন, এটা কাদা যে হচ্ছে গ্রামবাসীরা নীজের ইচ্ছায় করছে। কেন জানেন যত বৃষ্টি হয় বৃষ্টির পানি সবগুলোই পশ্চিম দিক দিয়ে চলে যায়।

কিন্তু যতক্ষণ আমার স্কুল ততক্ষণ আমি থাকি তাছাড়া সব সময় এলাকাবাসী এ ব্যবহার করে। এখন আমি কি করবো ওরা যদি ওদের ভালো না বুঝে এখন ওরা দেখুক ওরা কি করতে পারে।

স্কুল মাঠ সংস্কারের বরাদ্দ কি হল এমন প্রশ্নের জবাবে সরলখাঁ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রশিদুল আলম আর কোন সুউত্তর দিতে পারেনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2017 notun-bdsangbad
Design & Developed by RJ Ranzit
themesba-lates1749691102