বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:৩১ অপরাহ্ন

সন্তানকে কোলে কাঁদছে ধর্ষিত কিশোরী।

নতুন বাংলার সংবাদ
  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ৭ জুলাই, ২০২১
  • ১৪৩ বার দেখা হয়েছে
ছবি: সংগৃহীত

স্টাফ রিপোর্টার ।। ধর্ষণের প্রায় আড়াই মাস পর লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলায় এক কিশোরী কোলে জন্ম নিয়েছে ফুটফুটে পুত্র সন্তান। সন্তানের পিতৃ পরিচয় পাওয়ার জন্য জন্ম নেয়া সন্তানকে কোলে নিয়ে চোখের পানি ফেলছে ওই কিশোরী। যদিও নবজাতকের বাবা রবিউল ইসলামের নামে থানায় ধর্ষণ মামলা করেছেন সন্তানের মা।

মঙ্গলবার (৬জুলাই) বিকেলে বিষয়টি নিশ্চিত করেন উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সের সহকারী সার্জন ডাঃ দেবব্রত কুমার রায় অজয়। তিনি বলেন, ওই কিশোরী স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ভর্তি করালে গত ৪জুলাই নরমালে ডেলিভারি করলে ছেলে সন্তান জন্ম হয়। বর্তমানে শিশুটি ভালো রয়েছে। তাকে আজ বাড়িতে যাওয়ার জন্য ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে।

ধর্ষণের স্বীকার ওই কিশোরী লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার দলগ্রাম ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডের দঃ দলগ্রাম এলাকার সামছুল হকের মেয়ে। ধর্ষণের ঘটনায় গত ২০ এপ্রিল ওই অন্তঃসত্ত্বা কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে রবিউল নামে একজনকে আসামী করে কালীগঞ্জ থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

জানা গেছে, দীর্ঘদিন থেকে ধর্ষণের স্বীকার ওই কিশোরীর সাথে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে অবৈধ সম্পর্ক গড়ে তোলে। কিছুদিন পরে অসুস্থ হলে বিয়ের জন্য চাপ দেয় কিশোরীর পরিবার। কিন্তু ধর্ষক রবিউল বিয়ে করতে রাজি না হয়ে কিছু টাকা দিয়ে সন্তানটিকে নষ্ট করতে বলে। ধর্ষণের স্বীকার ওই কিশোরী সন্তান নষ্ট করার জন্য অস্কৃতি জানালে তাকে হত্যা করার হুমকি প্রদান করেন। উপায় না পেয়ে ২০ এপ্রিল কালীগঞ্জ থানায় গিয়ে পুলিশের সহয়তা চান। পরে কিশোরী নিজে বাদি হয়ে কালীগঞ্জ থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। ওইদিন রাতে মেয়েটি অসুস্থ হলে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি আরজু মোঃ সাজ্জাদ হোসেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। দীর্ঘদিন চিকিৎসায় থাকার পর গত ৪জুলাই ওই কিশোরী একটি পুত্র সন্তানের জন্ম দেন।

এদিকে বিষয়টি জানাজানি হলে সামাজিক যোগযোগ মাধ্যমে তীব্র প্রতিবাত জানিয়ে নিষ্পাপ শিশুটি যেন পিতৃপরিচয় পায় এমনটাই দাবী পুরো এলাকাবাসীসহ সচেতন মহলে।

ওই কিশোরীর মা ফাতেমা কান্নাজড়িত কণ্ঠে সাংবাদিকদের বলেন, মামলা করার পরেও আসামীকে পুলিশ তাকে খুঁজে পাচ্ছে না। এমন অবস্থায় আমার সন্তানকি বাবা পরিচয় থেকে বঞ্চিত হবে।

এ বিষয় কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আরজু মোঃ সাজ্জাদ হোসেন মামলা হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মামলা দায়ের হওয়ার পর থেকেই আসামীকে ধরার চেষ্টা করা হচ্ছে। কিন্তু তিনি পলাতক থাকায় থাকে গ্রেফতার করা সম্ভব হচ্ছে না।

আপনার মন্তব্য লিখুন

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2017 notun-bdsangbad
Design & Developed by RJ Ranzit
themesba-lates1749691102