বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:০৩ অপরাহ্ন

লালমনিরহাটে পানি নিষ্কাশন নালা বন্ধ ৮০ বিঘা জমির ফসল ক’দিন ধরে পানির নিচে

আসাদুল ইসলাম সবুজ
  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ২৯ আগস্ট, ২০২১
  • ১০৪ বার দেখা হয়েছে

লালমনিরহাটে পানি নিষ্কাশন নালা বন্ধ করায় প্রায় ৮০ বিঘা জমির আমন ধানের ফসল চাষাবাদে অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। ঘন বৃষ্টির পানি নিষ্কাশনের নালাগুলো বন্ধ করে দেয়ায় এ জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করতে না পারায় বিপাকে পড়েছেন কৃষকরা। ফসল বাঁচাতে নিরুপায় কৃষকরা সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর আবেদন করেছেন।

এলাকাবাসী জানান, সদর উপজেলার মহেন্দ্রনগর ইউনিয়নের বটতলা বাজারে পূর্ব পাশ হইতে নূরানী বাজার পর্যন্ত মকড়া ঢঢগাছ গ্রামটি কিছুটা নিচু এলাকা। গ্রামটির ৯০ ভাগ মানুষ কৃষি কাজের উপর নির্ভরশীল। এবার চলতি আমন মৌসুমে প্রায় ৮০ বিঘা জমিতে কৃষকরা আমন ধানের চারা লাগিয়েছেন।

কিন্তু ঘন বৃষ্টির কারণে নিচু এলাকা (মকড়া ঢঢগাছ) পানি নিষ্কাশনের নালাগুলো মাটি দিয়ে ভরাট করার কারণে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। ফলে প্রায় ৮০ বিঘা জমিতে কৃষকরা আমন ধানের চারা আজ কদিন ধরে পানির নিচে রয়েছে। পানি নিস্কাশনের অভাবে দিন দিন আমন ধানের চারাগুলো পচে নষ্ট হয়ে যাচ্ছ। বিপাকে পড়েছেন কৃষকরা। ফসল বাঁচাতে তারা কোন কুলকিনারা পাচ্ছে না।

নিরুপায় হয়ে ভুক্তভোগী কৃষক ও গ্রামবাসী স্থানীয় জনপ্রতিনিধির শরণাপন্ন হয়েও পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করতে পারেনি। ফলে তারা (১৬ আগষ্ট) সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) বরাবর আবেদন করেছেন।

রোববার (২৯ আগস্ট) সদর উপজেলার কৃষি অফিসার ও মহেন্দ্রনগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মশিউর রহমান বসুনিয়া স্বপন সরেজমিনে গিয়ে জলাবদ্ধতা এলাকা পরির্দশন করেছেন।

মকড়া ঢঢগাছ গ্রামের আমন চাষী খলিলুর রহমান মাষ্টার বলেন, পানি নিষ্কাশনের নালাগুলো মাটি দিয়ে ভরাট করার কারণে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। আজ কদিন ধরে পানির নিচে রয়েছে এলাকার আমন ক্ষেত। পানি নিস্কাশনের অভাবে দিন দিন আমন ধানের চারাগুলো পচে নষ্ট হয়ে যাচ্ছ।

মকড়া ঢঢগাছ গ্রামের আমন চাষী জীবন রায় বলেন, পানি নিষ্কাশনের নালাগুলো বন্ধ রাখায় অনেক ফসল নষ্ট হয়েছে। দ্রুত পানি নিষ্কাশনের নালাগুলো খোলা দেয়া না হলে এবার এলাকার আমন ফসল পানি খেয়ে ফেলবে।

এ বিষয়ে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) রুবেল রানা বলেন, ‘জলাবদ্ধতার বিষয়ে শুনেছি। ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যানকে বিষয়টি সমাধানের জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তাছাড়াও স্থানীয় ভাবে খোঁজ খবর নিচ্ছি ও স্থানীয় ভাবে সমাধানের চেষ্টা করছি।

আপনার মন্তব্য লিখুন

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2017 notun-bdsangbad
Design & Developed by RJ Ranzit
themesba-lates1749691102