মঙ্গলবার, ১৬ অগাস্ট ২০২২, ০৯:২৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
লালমনিরহাটের খোড়াগাছ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে জাতীয় শোক দিবস পালিত হয়নি! একেই বলে লালমনিরহাটের দেউতির হাট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের প্রভুভক্তি! উমাপতি হরনারায়ন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা মাঞ্জুমার বিরুদ্ধে অভিযোগের তদন্ত শুরু নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে শিবরাম স্কুল এন্ড কলেজে জাতীয় শোক দিবস পালিত লালমনিরহাটে দুর্বৃত্তদের হামলায় ৫ সাংবাদিক আহত, একজন আসামি গ্রেফতার লালমনিরহাটে অটোরিক্সা চালক অপহরণ, মুক্তিপণ দাবী (ভিডিও সহ) মহাত্মাগান্ধী গোল্ডেন এ্যাওয়াড পেলেন লালমনিরহাটের তিস্তা কে. আর. খাদেম উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক লালমনিরহাট পানি উন্নয়ন বোর্ডের সংস্কার কাজ পানির স্রোতে হারিয়ে যাচ্ছে! লালমনিরহাট রেলওয়ে চুক্তিভিত্তিক টিএলআর, নিয়োগে লক্ষ লক্ষ হাতিয়ে নিচ্ছেন ফিরোজ হারিয়েছে…

লালমনিরহাটে আম জমিতে পড়ায় বৃদ্ধের মাথা কুপিয়ে জখম : একজন আটক

নতুন বাংলার সংবাদ
  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ২৯ মে, ২০২২
  • ১৭১ বার দেখা হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার।। লালমনিরহাট সদর উপজেলার কুলাঘাট ইউনিয়নের সাকোয়া গ্রামে বাগানের আম জমিতে পড়ায় বৃদ্ধের মাথা কুপিয়ে আঃ ছালাম (৬৫) কে জখম করায় এক জনকে আটক করেছে থানা পুলিশ।

আটককৃত ব্যক্তি হলেন একই এলাকার মৃতঃ হোসেন আলীর ছেলে সহিদার রহমান সহেদ (৫০)।

রোববার (২৯ মে) দুপুর ১টার দিকে কুলাঘাট ইউনিয়নের সাকোয়া গ্রামে আম পড়াকে কেন্দ্র করে জমিজমার বিরোধে এ মারা মারির ঘটনা ঘটে।

এ বিষয়ে আহত বৃদ্ধের মেয়ে সেলিনা আক্তার বাদী হয়ে লালমনিরহাট সদর থানায় ৭ জনকে অভিযুক্ত করে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগকারী ও অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, জমিজমার সীমানা নিয়ে পূর্ব থেকেই প্রতিবেশী মৃত হোসেন আলীর ছেলে সহিদার রহমান সহেদ (৫০) ও তার ভাই অহেদ আলী (৫৩) তার ছেলে মিজানুর রহমান (২৫)। এছাড়াও আশরাফুল ইসলাম (২৬), সাবিনা ইয়াসমিন (১৮), আয়শা বেগম (৪৫) গং পূর্ব পরিকল্পিতভাবে একই উদ্দেশ্যে হাতে ধারালো ছোরা দা বাশেঁর লাঠি সহ অভিযুক্ত শহিদুর রহমানের বাড়ির আঙিনায় অবস্থান করেন।

ওই সময় সেলিনার বৃদ্ধ বাবা জখমী আঃ ছালাম (৬৫) মাঠে থাকা গরু বাড়িতে আনার জন্য যাবার সময় অভিযুক্ত শহীদারের বাড়ির সামনে পৌছামাত্র বড় ভাইয়ের হুকুম পেয়ে অভিযুক্ত শহীদ আর তার হাতে থাকা ছোড়া দিয়ে বৃদ্ধ ছালামের মাথায় চোট মারলে তার মাথার মাঝের অংশে গুরুতর জখম হয়।

বাবাকে বাঁচাতে সেলিনা বেগম এগিয়ে গেলে তার উপরেও ক্ষিপ্ত হয়ে হামলা চালায় অভিযুক্তরা এতে সেলিনাও আহত হন। পরে আহতদের চিৎকার চেঁচামেচি শুনে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে নিয়ে আসলে আঃ সালামের মাথার কাটা অংশে কর্তব্যরত চিকিৎসক ১৫টি সেলাই দিয়ে জখমী ছালামকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করার প্রস্তুতি চলছে।

এ ঘটনায় খবর পেয়ে লালমনিরহাট সদর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন। ওই সময় মৃতঃ হোসেন আলীর ছেলে সহিদার রহমান সহেদ (৫০) আটক করে থানার নিয়ে আসেন।

এবিষয়ে লালমনিরহাট সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাহা আলম বলেন, মারামারির ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2017 notun-bdsangbad
Design & Developed by RJ Ranzit
themesba-lates1749691102