সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ০২:৩৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ইলিয়াস মোল্লা’কেই পুনরায় চেয়ারম্যান হিসেবে চায় লাউকাঠী ইউনিয়নবাসী শিক্ষার্থীদের ধাওয়া খেয়ে ভোঁ-দৌড় দিলেন সুন্দরগঞ্জ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা! লালমনিরহাটে পানির নিচে কৃষকের স্বপ্নের ধান! হাতীবান্ধায় ন্যাশনাল ব্যাংকের করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ ভুট্টাক্ষেতে মিলল স্কুলছাত্রীর মরদেহ তিস্তা বাঁচাও ভাঙ্গন ঠেকাও শীর্ষক তিস্তা কনভেনশন কাজীর কান্ড! কাবিননামা নিতে ৩০ হাজার টাকা দাবি মাদক ব্যবসায়ীদের ছুরিকাঘাতে দুই পুলিশ কর্মকর্তা আহত! লালমনিরহাটে বিএনপির বাইসাইকেল র‍্যালিতে মির্জা ফখরুল লালমনিরহাটে অস্ত্রসহ ৪ জন জনতার হাতে আটক।। পুলিশে সোপর্দ

লালমনিরহাটের সলেডি স্প্যার বাঁধ পরিদর্শন করলেন ডিসি

নতুন বাংলার সংবাদ
  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২ জুলাই, ২০২১
  • ২৪ বার দেখা হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার ।। হঠাৎ তিস্তার পানি কিছুটা বেড়ে যাওয়ায় ভাঙনের মুখে পড়ে লালমনিরহাটের সলেডি স্প্যার বাঁধ ২। এই খবর পেয়ে বৃষ্টিকে উপেক্ষা করে বাঁধটি পরিদর্শন করেন জেলা প্রশাসক (ডিসি) আবু জাফর। শুক্রবার (২ জুলাই) দুপুরে বৃষ্টিকে উপেক্ষা করে একাই বাঁধ পরিদর্শনে নদীর পাড়ে যান জেলা প্রশাসক আবু জাফর।

স্থানীয়রা জানান, কয়েকদিনের ভারী বর্ষণ ও উজানের পাহাড়ি ঢলে তিস্তার পানি প্রবাহ বেড়ে যায়। জন্মলগ্ন থেকে খনন না করায় পলি ও বালু জমে তিস্তা নদীর তলদেশ ভরাট হয়ে গেছে। ফলে সামান্য পানি বাড়লে তিস্তা নদীর দুই কূল উপচিয়ে লোকালয়ে পানি প্রবেশ করে। এতে তিস্তার তীরবর্তী নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়ে বেশকিছু পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় সলেডি স্প্যার বাঁধ-২ এর উজানে চৌরাহা মাদরাসা এলাকায় ৬টি বসতভিটা ও কয়েক একর ফসলি জমি নদীতে বিলীন হয়ে গেছে। ভাঙনের মুখে পড়েছে শতশত বসতবাড়ি। ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্তরা খোলা আকাশের নিচে মানবেতর জীবন-যাপন করছেন।

এছাড়া সদর উপজেলার চর গোকুন্ডায় ভাঙন শুরু হয়েছে। পূর্বপাড়া গ্রামে গত দুই দিনে ২-৩টি বাড়ি তিস্তায় বিলীন হয়ে গেছে। শুক্রবার (২ জুলাই) দুপুরে স্থানীয় উপজেলা বা ইউনিয়ন পরিষদকে না জানিয়ে একাই স্প্যার বাঁধ-২ এবং নদী ভাঙন কবলিত এলাকা পরিদর্শনে যান জেলা প্রশাসক আবু জাফর। বৃষ্টিকে উপেক্ষা বরে ছাতা হাতে পুরো স্প্যার বাঁধ-২ ঘুরে ঘুরে দেখেন তিনি। এরপর ভাঙন কবলিত এলাকা পরিদর্শন করেন।

পরিদর্শন শেষে জেলা প্রশাসক আবু জফর বলেন, স্প্যার বাঁধ রক্ষায় প্রয়োজনীয় জিও ব্যাগ পানি উন্নয়ন বোর্ডের কাছে জমা রয়েছে। জরুরি প্রয়োজন দেখা দিলেই ব্যবস্থা নিতে তাদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। বর্ষাকাল নদীপাড়ের জেলা হিসেবে আমাদের বন্যা মোকাবিলা করতে হবে। বন্যা মোকাবিলায় আমরা প্রস্তুত রয়েছি। ভাঙনের মুখে পড়া বসতবাড়ি রক্ষায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে পানি উন্নয়ন বোর্ডকে বলা হয়েছে। একইসঙ্গে নদীপাড়ের তথ্য সার্বক্ষণিক মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হচ্ছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2017 notun-bdsangbad
Design & Developed by Freelancer Zone
themesba-lates1749691102