বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ০৩:১৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ইলিয়াস মোল্লা’কেই পুনরায় চেয়ারম্যান হিসেবে চায় লাউকাঠী ইউনিয়নবাসী শিক্ষার্থীদের ধাওয়া খেয়ে ভোঁ-দৌড় দিলেন সুন্দরগঞ্জ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা! লালমনিরহাটে পানির নিচে কৃষকের স্বপ্নের ধান! হাতীবান্ধায় ন্যাশনাল ব্যাংকের করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ ভুট্টাক্ষেতে মিলল স্কুলছাত্রীর মরদেহ তিস্তা বাঁচাও ভাঙ্গন ঠেকাও শীর্ষক তিস্তা কনভেনশন কাজীর কান্ড! কাবিননামা নিতে ৩০ হাজার টাকা দাবি মাদক ব্যবসায়ীদের ছুরিকাঘাতে দুই পুলিশ কর্মকর্তা আহত! লালমনিরহাটে বিএনপির বাইসাইকেল র‍্যালিতে মির্জা ফখরুল লালমনিরহাটে অস্ত্রসহ ৪ জন জনতার হাতে আটক।। পুলিশে সোপর্দ

যুক্তরাজ্যে করোনা বিপর্যয়ের ভ্যাকসিন নিয়ে সন্দেহ ও বিভ্রান্তি!

নতুন বাংলার সংবাদ
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ২৬ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ৬০ বার দেখা হয়েছে
ছবি: সংগৃহীত

বাংলার সংবাদ ডেস্ক ।। নতুন ধরনের করোনাভাইরাসের জেরে ব্রিটেনে সংক্রমণ এত দ্রুত বাড়ছে যে সরকারি হিসাবেই ইংল্যান্ডে এখন প্রতি ৮৫ জনের একজন সংক্রমিত।

১৮ই ডিসেম্বর প্রকাশিত এক হিসাবে ইংল্যান্ডে কোভিড রোগীর সংখ্যা ৬৫০,০০০। আগের সপ্তাহে ঐ সংখ্যা ছিল ৫৭০,০০০। সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ হচ্ছে লন্ডনে।

কিন্তু লন্ডনের স্বাস্থ্য কর্মীরা বলছেন, সংক্রমণের ভীতি বাড়লেও উল্লেখযোগ্য সংখ্যক মানুষ প্রস্তাব পেয়েও ভ্যাকসিন নিতে অস্বীকার করছেন।

ইংল্যান্ডের জাতীয় স্বাস্থ্য বিভাগ বা এনএইচএসের কর্মকর্তা মোস্তফা ফারুক- যিনি লন্ডনের বাংলাদেশি অধ্যুষিত টাওয়ার হ্যমলেটস এলাকার একটি জিপি সেন্টার বা স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রের ব্যবস্থাপক- বিবিসি বাংলাকে বলেন ভ্যাকসিন দেওয়া শুরুর প্রথম সপ্তাহেই তারা সন্দেহ, বিভ্রান্তি এবং আপত্তির মুখোমুখি হয়েছেন।

‘আমরা যখন ফোন করে ভ্যাকসিন নেওয়ার প্রস্তাব দিচ্ছি, অনেক মানুষ গড়িমসি করছেন, নানা প্রশ্ন করছেন। অনেকে সরাসরি প্রত্যাখ্যান করছেন।’

ব্রিটেনে ১৫ই ডিসেম্বর ফাইজার/বায়োনটেকের তৈরি ভ্যাকসিন দেওয়া শুরু হয়েছে। প্রথম দফায় ৮০ বছর এবং তার ঊর্ধ্ব বয়সীদের অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে।

মোস্তফা ফারুক জানান প্রথম সপ্তাহে টাওয়ার হ্যামলেটসের ৩৬টি জিপি সার্ভিসের মাধ্যমে ৮০ বা তার ঊর্ধ্ব ৯৩৫ জনকে টিকা দেওয়ার টার্গেট নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু আপত্তি-অনীহার কারণে লক্ষ্যমাত্রার ৪৪ শতাংশ অর্জিত হয়েছে। ফলে, বেঁচে যাওয়া ভ্যাকসিনগুলো ডাক্তার, নার্স বা অন্য স্বাস্থ্য কর্মীদের দেওয়া হয়েছে।

মি. ফারুক জানান, মানুষকে উদ্বুদ্ধ করতে পরে ডাক্তাররা নিজেরাই মানুষের বাসায় ফোন করেছেন, কিন্তু তারপরও অনেকেই ভ্যাকসিন নিতে সরাসরি অস্বীকার করেছেন।

উদাহরণ দিতে গিয়ে তিনি বলেন – একজন জিপি একদিনে ২৫ জনকে ফোন করেছিলেন কিন্তু তাদের সাত জন সরাসরি ভ্যাকসিন নিতে অস্বীকার করেন, বাকি পাঁচজন নানা কারণে আসতে অপরাগতার কথা জানান।

আপনার মন্তব্য লিখুন

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2017 notun-bdsangbad
Design & Developed by Freelancer Zone
themesba-lates1749691102