মঙ্গলবার, ১৬ অগাস্ট ২০২২, ০৯:৫৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
লালমনিরহাটের খোড়াগাছ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে জাতীয় শোক দিবস পালিত হয়নি! একেই বলে লালমনিরহাটের দেউতির হাট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের প্রভুভক্তি! উমাপতি হরনারায়ন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা মাঞ্জুমার বিরুদ্ধে অভিযোগের তদন্ত শুরু নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে শিবরাম স্কুল এন্ড কলেজে জাতীয় শোক দিবস পালিত লালমনিরহাটে দুর্বৃত্তদের হামলায় ৫ সাংবাদিক আহত, একজন আসামি গ্রেফতার লালমনিরহাটে অটোরিক্সা চালক অপহরণ, মুক্তিপণ দাবী (ভিডিও সহ) মহাত্মাগান্ধী গোল্ডেন এ্যাওয়াড পেলেন লালমনিরহাটের তিস্তা কে. আর. খাদেম উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক লালমনিরহাট পানি উন্নয়ন বোর্ডের সংস্কার কাজ পানির স্রোতে হারিয়ে যাচ্ছে! লালমনিরহাট রেলওয়ে চুক্তিভিত্তিক টিএলআর, নিয়োগে লক্ষ লক্ষ হাতিয়ে নিচ্ছেন ফিরোজ হারিয়েছে…

মহাত্মাগান্ধী গোল্ডেন এ্যাওয়াড পেলেন লালমনিরহাটের তিস্তা কে. আর. খাদেম উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক

নতুন বাংলার সংবাদ
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ৪ আগস্ট, ২০২২
  • ১০৫ বার দেখা হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার ॥ লালমনিরহাট সদর উপজেলাধীন রাজপুর ইউনিয়নের সরকার পাড়া গ্রামে এক সম্ভান্ত মুসলিম পরিবারে জন্ম। আট ভাই-বোনের মধ্যে তিনি কনিষ্ট। বাবা প্রয়াত আবু তালেব সরকার স্বাস্থ্য সহকারী হিসাবে কর্মরত ছিলেন। বড় ভাই মো: আশরাফুল ইসলাম সরকার লালমনিরহাট সোনালী ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার। তার সহধর্মিণী মমতাজ সরকার তিনিও পেশায় একজন শিক্ষক। তিনি এক ছেলে ও মেয়ের বাবা। তিনি তিস্তা কে. আর. খাদেম উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এস.এস.সি পাশসহ এম.এস.এস (রাষ্ট্রবিজ্ঞান) বি.এড ডিগ্রী অর্জন করেন। ১১/০২/২০০১ খ্রি: তারিখে ঐতিহ্যবাহী তিস্তা কে.আর. খাদেম উচ্চ বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক (কম্পিউটার) পদে যোগদান করে কর্মজীবনের যাত্রা শুরু করেন। তিনি তার দক্ষতা ও যোগ্যতার মাধ্যমে শিক্ষকতা করেন, যার ফলে তাকে আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। তিনি গত ২/৫/২০১৩ খ্রি. তারিখে উক্ত বিদ্যালয়ে সহকারী প্রধান শিক্ষক ২১/২/২০১৪ খ্রি. তারিখে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক এবং গত ৩/১১/২০১৪ খ্রি. তারিখে প্রধান শিক্ষক হিসাবে যোগদান করে অদ্যবধি অত্যন্ত সুনামের সহিত বিদ্যালয় পরিচালনা করে আসছেন। তিনি রোটারী ক্লাব, মসজিদ, মাদ্রাসা সহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনে গুরুত্বপুর্ন পদে আছেন। এছাড়াও বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি, লালমনিরহাট জেলা শাখার দপ্তর সম্পাদক ও সদর উপজেলা শাখার সহ সভাপতি, ওঈঞ৪ঊ জেলা অ্যাম্বেসেডর, বাংলাদেশ স্কাউট, লালমনিরহাট সদর উপজেলার সম্পাদক পদে অত্যন্ত দক্ষতার সহিত নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন। ঐতিহ্যবাহী তিস্তা কে. আর. খাদেম উচ্চ বিদ্যালয়টি সদর উপজেলার গোকুন্ডা ইউনিয়নে অবস্থিত একমাত্র জেলার বেসরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়। বিদ্যালয়টি বৃটিশ আমলে তথা ১৯৪৬ সালে প্রতিষ্ঠিত। বিদ্যালয়টির দুরের শিক্ষকদের থাকার জন্য শিক্ষক কোয়াটার রয়েছে। দুরবর্তী ০৫ জন শিক্ষক পরিবারসহ উক্ত কোয়াটারে থেকে বিদ্যালয় করছেন। এছাড়াও তিস্তার ঐতিহ্যবাহী ফুটবল খেলার মাঠটি বিদ্যালয়ের। বিদ্যালয়টিতে ১টি ২য়, ৩য় ও একতলা বিশিষ্ট ২টি ভবন, ১টি পুকুর রয়েছে। আইসিটি ও বিজ্ঞান শিক্ষা প্রসারের জন্য ‘‘ শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব ’’ ও উপজেলায় প্রথম প্রতিষ্ঠিত বিজ্ঞান ক্লাবসহ বিজ্ঞানাগার রয়েছে। সততা ষ্টোর স্টুডেন্টস ক্যাবিনেট, স্কাউট দল, অভিভাবক সমাবেশ, নিয়মিত হোম ভিজিটসহ জাতীয় দিবস গুলো যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করা হয়। শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের বই পড়ায় উৎসাহিত করার জন্য ২,৫০০/- (দুই হাজার পাঁচশত) বই বিশিষ্ট একটি সুবিশাল লাইব্রেরি রয়েছে। বিদ্যালয়ের দক্ষ শিক্ষকগণ মাল্টিমিডিয়া ব্যবহারের মাধ্যমে ক্লাস আকর্ষনীয় করছেন। বরাবরই জেএসসি ও এসএসসি পাবলিক পরীক্ষার ফলাফল ভাল হয়। বিদ্যালয়টিতে লেখাপড়ার পাশাপাশি সহ: শিক্ষাক্রমে এগিয়ে আছে। বির্তক, কুইজ, আবৃতি, উপস্থিত বক্তৃতা, রচনা, চিত্রাংকন, ক্রিকেট, ফুটবল, সাঁতার, সাইক্লিংসহ বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা অংশ গ্রহন করে, বিভিন্ন স্থান অধিকার করে। বাংলাদেশ যুব গেমস-২০১৮ সাতার প্রতিযোগিতায় জাতীয় পর্যায়ে রংপুর বিভাগের ৭ জন শিক্ষার্থী সাঁতারু অংশ গ্রহন করে, তার মধ্যে ৫ জন শিক্ষার্থী এ বিদ্যালয়ের ছাত্র। ৪৭ তম গ্রীস্মকালীন জাতীয় স্কুল ও মাদ্রাসা ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় সাঁতার (বালক) উপজেলা ও জেলা পর্যায়ে শতভাগ পুরস্কার অর্জন করে এবং ৪৭ তম শীতকালীন ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অ্যাথলেটিকে এ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সর্বোচ্চ সংখ্যক পুরস্কার অর্জন করে। ৪৮তম গ্রীস্মকালীন ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় কাবাডি তে উপজেলা পর্যায়ে চ্যাম্পিয়ান হয় এব সাঁতার (বালক) উপজেলা পর্যায়ে ২৬টি পুরস্কারের মধ্যে ২২টি, জেলা পর্যায়ে ১৮টি, উপ-অঞ্চল পর্যায়ে ৭টি, আঞ্চলিক (রাজশাহী) পর্যায়ে ২টি অর্জন করে। ৫০তম গ্রীস্মকালীন ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় সাইক্লিং-এ অত্র বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী ললিত কুমার জাতীয় পর্যায়ে পুরুস্কার অর্জন করে। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ লালমনিরহাট জেলা শাখার উদ্যোগে ‘‘আন্ত: জেলা গোল্ডকাপ ফুটবল এ বিদ্যালয় রানার্স আপ হয়। এছাড়াও প্রধান শিক্ষকের দক্ষ নেতৃত্বে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ-২০১৮, ২০১৯ ও ২০২২ পর-পর তিন বার উপজেলা ও জেলা পর্যায়ে ২০১৮ ও ২০১৯ শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নির্বাচিত হয়। প্রধান শিক্ষকের দক্ষ নেতৃত্ব এবং শিক্ষা ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য ইতোমধ্যে মাদার তেরেসা গোল্ডেন অ্যাওয়ার্ড-২০১৯, মুজিব শতবর্ষে মুজিব অ্যাওয়ার্ড-২০২০, স্বাধীনতা স্মৃতি অ্যাওয়ার্ড-২০২২ অর্জন করেছেন। গত ২৫ জুলাই,২০২২ শ্রুতিবৃত্ত ভারত ও আলোকিত বাংলার মুখ, বাংলাদেশ এর যৌথ প্রয়াসে ভারত-বাংলাদেশ সম্প্রীতি উৎসব, সত্যজিৎ রায় অডিটরিয়াম, আইসিসিআর কলকাতায় অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের ৩৫জন গুনীব্যক্তিকে মহাত্মা গান্ধী গোল্ডেন অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়। বিভাগীয় শিক্ষা ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য লালমনিরহাট সদরস্থ তিস্তা কে.আর. খাদেম উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জনাব মোঃ একরামুল হক সরকার-কে মহাত্মা গান্ধী গোল্ডেন অ্যাওয়ার্ড-২০২২ ও সনদ প্রদান করা হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে ভারতীয় বাংলা সিনেমার অভিনেতা চিরঞ্জিৎ কুমার, স¤্রাট সেনসহ দুই বাংলার সাংস্কৃতিক ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। তাঁর এ কৃতিত্ব অর্জনে ‘নতুন বাংলার সংবাদ” পত্রিকা পরিবারের পক্ষ হতে প্রাণঢালা অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানাচ্ছি।’ লালমনিরহাট জেলার নেতৃত্বদানকারী অনেকেই এ বিদ্যালয়ের কৃতি ছাত্র ছিল। লালমনিরহাট সদর-৩ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য প্রয়াত আলহাজ্ব ইঞ্জিনিয়ার আবু সালেহ মো: সাঈদ দুলাল, লালমনিরহাট জেলা পরিষদের সুযোগ্য প্রশাসক ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক জনাব এ্যাড. মতিয়ার রহমান, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও বিশিষ্ট্য আইনজীবি জনাব নজরুল ইসলাম রাজু, জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও গোকুন্ডা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান জনাব গোলাম মোস্তফা স্বপন মহোদয়গণ। এছাড়াও বাংলাদেশ চা বোর্ডের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মোঃ আশরাফুল ইসলাম, এনডিসি, পিএসসি, মহোদয়, বাংলাদেশ নৌ-পরিবহন দপ্তরের সাবেক মহাপরিচালক, কমডোর আবু জাফর মো: জালাল উদ্দিন (সি), পিসিজিএম, এনডিসি, পিএসসি, বিএন মহোদয়, জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ মজনু মিয়া, কুড়িগ্রাম মহোদয়সহ উচ্চ পদস্থ অনেক ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার এ বিদ্যালয়ের কৃতি ছাত্র ছিল। বিদ্যালয়টিকে সুষ্ঠুভাবে সার্বিক সহযোগিতা ও দিক নির্দেশনা প্রদান করছেন এলাকার সুধীজনসহ দক্ষ কমিটি বৃন্দ। করোনাকালীন সময়ে (২০২০-২০২১) পিছিয়ে পরা শিক্ষার্থীদের অন-লাইন ক্লাশ পরিচালনা করেছেন দক্ষ, অভিজ্ঞ শিক্ষক মন্ডলী। পরিশেষে, প্রধান শিক্ষকের নিকট জানতে চাইলে তিনি জানান, যেহেতু এই বিদ্যালয়ের আমি এক সময় ছাত্র ছিলাম, অনেক স্মৃতি জরিত আছে এ বিদ্যালয়ে। আজকের প্রধান শিক্ষক ও সম্মান তা এ বিদ্যালয়ের অবদান। তাই এ প্রাপ্তি বিদ্যালয়ের মরহুম, অবসরপ্রাপ্ত ও বর্তমান শিক্ষকগণ-কে উৎসর্গ করলাম। বিদ্যালয়টির শিক্ষার গুণগতমান সহ সার্বিক উন্নয়নে শেষ রক্ত বিন্দু দিয়ে হলেও চেষ্টা করবো-ইনশাআল্লাহ।

আপনার মন্তব্য লিখুন

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2017 notun-bdsangbad
Design & Developed by RJ Ranzit
themesba-lates1749691102