শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ১১:৩১ পূর্বাহ্ন

বাংলাদেশ সময় আজ রাত ১০টায় : কাতারের মান রক্ষার লড়াই, ইকুয়েডর দেখাবে ডর

বাংলার সংবাদ ডেস্ক ।।
  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ২০ নভেম্বর, ২০২২
  • ২২ বার দেখা হয়েছে
ছবি- সংগৃহীত

অর্থ দিয়ে একটা ‘কৃত্রিম স্বর্গের’ আদল দেওয়া যায়। পেট্রো ডলারের গরমে ১২ বছর ধরে একটু একটু করে বিশ্বকাপের জন্য কৃত্রিম ওই ‘স্বর্গ’ প্রস্তুত করেছে কাতার। ফুটবলের চিরায়ত সূচি উল্টে শীতকালে এনেছে। কিন্তু অর্থ কি রাতারাতি দেশের ফুটবল বদলে দিতে পারে? সহজ উত্তর- না।

বিশ্বকাপে স্বাগতিক কাতার দলের ওপর থাকবে নূন্যতম প্রত্যাশা মেটানোর পাহাড়সম চাপ। আগে কখনও বিশ্বের সবচেয়ে বড় এই মেগা আসরে পা রাখেনি কাতার। স্বাগতিক না হলে এবারও কি হতো! বিশ্বকাপ ইতিহাসের সর্বোচ্চ প্রায় ২০০ বিলিয়ন ডলার খরচে পাওয়া সুযোগ হেলায় হারানোর সুযোগ নেই দলটির। অন্তত গ্রুপ পর্ব পার হয়ে সম্মান বাঁচানোর চ্যালেঞ্জ নিতেই হবে আফিফ-বৌদিয়াফদের।

বিশ্বকাপের ইতিহাসে স্বাগতিকদের গ্রুপ পর্বে বাদ পড়ার ‘দুর্ঘটনা’ ঘটেছে মাত্র একবার। বিশ্বকাপের বিরল ওই ঘটনা ২০১০ সালে ঘটিয়েছিল স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকা। তবু যোগ্যতায় দু’বার বিশ্বকাপ (১৯৯৮, ২০০২) খেলেছিল আফ্রিকার দেশটি। আরব দেশ কাতারের ওই অভিজ্ঞতা কিংবা ইতিহাসও নেই। বৈচিত্র্যপূর্ণ গ্রুপ ‘এ’ থেকে দ্বিতীয় রাউন্ডে যাওয়ার কঠিন চ্যালেঞ্জ তাদের।

অন্যদিকে দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চল অর্থাৎ ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা-উরুগুয়ের বিপক্ষে খেলা কিংবা কলম্বিয়া-চিলিকে বিদায় করে বিশ্বকাপে এসেছে ইকুয়েডর। কঠিন বাধা পেরিয়ে আসা দলটি কাতারকে ছেড়ে কথা বলবে না। পড়ে গেলেই মৃত্যু জেনে যে লড়াই, সেখানে ছাড় দেওয়ার প্রশ্নই ওঠে না।

ইকুয়েডরকে গ্রুপের তিন ম্যাচেই ‘মৃত্যু নয়তো মুক্তি’ এই স্লোগান নিয়ে নামবে। কারণ গ্রুপের তিন প্রতিপক্ষেরই টার্গেট হবে দলটি। নরম কাঠ ভেবে ঠুকতে চাইবে পেরেক। কিন্তু ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে ১২তম অবস্থানে থাকা লাতিন ফুটবলের কৌশলসমৃদ্ধ ইকুয়েডর পাল্টা আক্রমণের ফুল ফুটিয়ে প্রতিপক্ষকে দেখাতে চাইবে ডর।

বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচে ইকুয়েডরের বিপক্ষে জিতে এগিয়ে যেতে চাইবে কাতার। জয়ের সম্ভাবনা আছে দেখেই কর্তৃপক্ষ হয়তো প্রথম ম্যাচ ইকুয়েডরের বিপক্ষে ফেলেছে। কিছুটা আন্ডারডগ হয়েই হয়তো নামবে ইকুয়েডর। রক্ষণে সর্বোচ্চ মনোযোগ দিয়ে খেলবে তারা। রক্ষণদুর্গ উঁচু এবং শক্ত করে খেলে সর্বশেষ ১০ ম্যাচে তারা হেরেছে মাত্র একটিতে। গোল হজম করেছে মাত্র তিনটি। ব্রাজিল-আর্জেন্টিনাকে সর্বশেষ দেখায় জিততে দেয়নি।

কাতারের খেলার ধরনও রক্ষণাত্মক। কোচ দল সাজান ৫-৩-২ ফরমেশনে। বিশ্বকাপেও ওই ছক থেকে সরার সম্ভাবনা দলটির খুব কম। ঘর সামলে আক্রমণের দর্শন দলটির। সুযোগ খুঁজবে প্রতিপক্ষের ভুলের সুযোগে কাউন্টার অ্যাটাকে গোল আদায় করার। বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচটা তাই রক্ষণাত্মক হওয়ার সম্ভাবণা থাকলেও দুই দলই চেষ্টা করবে পূর্ণ পয়েন্ট তুলে নেওয়ার। এগিয়ে যাওয়ার জন্য এই ম্যাচই যে হবে সেরা সুযোগ।

আপনার মন্তব্য লিখুন

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2017 notun-bdsangbad
Design & Developed by RJ Ranzit
themesba-lates1749691102