শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ০১:১৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
লালমনিরহাটে বসতভিটা ও চাষাবাদের ৩৩ শতক জমি রক্ষায় নিঃস্ব ফৈমুদ্দিন শুধুই কাঁদছেন! লালমনিরহাটের গোকুন্ডায় যৌতুকের দাবীতে গৃহবধুকে অমানসিক নির্যাতনে অভিযোগ মই দিয়ে ৫ কোটি টাকায় সেতুতে উঠছেন স্থানীয়রা! ইলিয়াস মোল্লা’কেই পুনরায় চেয়ারম্যান হিসেবে চায় লাউকাঠী ইউনিয়নবাসী শিক্ষার্থীদের ধাওয়া খেয়ে ভোঁ-দৌড় দিলেন সুন্দরগঞ্জ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা! লালমনিরহাটে পানির নিচে কৃষকের স্বপ্নের ধান! হাতীবান্ধায় ন্যাশনাল ব্যাংকের করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ ভুট্টাক্ষেতে মিলল স্কুলছাত্রীর মরদেহ তিস্তা বাঁচাও ভাঙ্গন ঠেকাও শীর্ষক তিস্তা কনভেনশন কাজীর কান্ড! কাবিননামা নিতে ৩০ হাজার টাকা দাবি

ধান ক্ষেত্রের সাথে এ কেমন শত্রুতা ?

আশরাফুল হক, স্টাফ রিপোর্টার ।।
  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ১২৯ বার দেখা হয়েছে

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলায় রোপণকৃত বোরো ধান ক্ষেতে ক্ষতিকারক কিটনাশক স্প্রে করে ৫ বিঘা জমির ধান গাছ নষ্ট করে ফেলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে করে আনুমানিক ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা ক্ষতি হয়েছে বলে জানান ভুক্তভোগী কৃষক আমিনুর রহমান।

মঙ্গলবার (২১ সেপ্টম্বর) রাতে ভুক্তভোগী আমিনুর রহমান বাদী হয়ে ১৩ জনের নাম উল্লেক করে হাতীবান্ধা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দেন। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার ফকিরপাড়া ইউনিয়নের দালালপাড়া গ্রামে।

ধান ক্ষেত নষ্ট করার ঘটনায় অভিযুক্তরা হলেন, উপজেলার দালাল পাড়া গ্রামের ওমর আলী, আ: সোবাহান, রেজাউল, সামশুল, ওয়াহেদ, বাতেন, নজরুল, জুলফিকার আলী ভুট্টু, অহিলা বেগম, রিপা বেগম, ময়না বেগম ও রাশেদা বেগম।

জানা গেছে, ভুক্তভোগী কৃষক আমিনুর রহমান তার নিজ ৫ বিঘা জমিতে বোরো ধান রোপণ করেন। কিন্ত পূর্ব শত্রুতার জেড়ে ওই এলাকার ওমর আলী, আ: সোবাহানসহ বেশ কয়েকজন গত শুক্রবার রাতে ক্ষতিকর কিটনাশক স্প্রে করে। এতে ধান গাছ গুলো বিবর্ণ হয়ে মরে যায়।

ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক আমিনুর রহমান আমিন (৭৩) জানান, ওমর আলীদের সাথে দীর্ঘ দিন ধরে জমি-জমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। সেই শত্রুতার জেড়ে গত শুক্রবার রাতের আধারে ওমর আলীসহ বেশ কয়েকজন আমার ৫ বিঘা জমির ধান ক্ষেতে ঘাস মারা ঔষধ স্প্রে করে পুড়িয়ে দেয়। আমি এর সঠিক বিচার চাই।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ওমর আলী বলেন, আমি রংপুরে বসবাস করি। আমি কিভাবে গ্রামে গিয়ে তাদের ধান ক্ষেত নষ্ট করি। তারা নিজেই ধান ক্ষেত নষ্ট করে আমাদের ফাঁসানোর চেষ্টা করছে।

ফকিরপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে ধানের ক্ষেত দেখতে সরেজমিনে গিয়ে পরিদর্শন করেছি। কৃষক আমিনুর রহমান আমিনের ৫ বিঘা জমির ধান ক্ষেত পুরে গেছে। তাদেরকে আইনের সহায়তা নিতে বলা হয়েছে। হাতীবান্ধা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ওমর ফারুক বলেন, বিষয়টি শুনে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে লিখত আবেদন করতে বলছি। ক্ষতিগ্রস্থ ধান ক্ষেত দ্রুত পরিদর্শন করা হবে।

হাতীবান্ধা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এরশাদুল আলম জানান, এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2017 notun-bdsangbad
Design & Developed by Freelancer Zone
themesba-lates1749691102