সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ০১:৩১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ইলিয়াস মোল্লা’কেই পুনরায় চেয়ারম্যান হিসেবে চায় লাউকাঠী ইউনিয়নবাসী শিক্ষার্থীদের ধাওয়া খেয়ে ভোঁ-দৌড় দিলেন সুন্দরগঞ্জ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা! লালমনিরহাটে পানির নিচে কৃষকের স্বপ্নের ধান! হাতীবান্ধায় ন্যাশনাল ব্যাংকের করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ ভুট্টাক্ষেতে মিলল স্কুলছাত্রীর মরদেহ তিস্তা বাঁচাও ভাঙ্গন ঠেকাও শীর্ষক তিস্তা কনভেনশন কাজীর কান্ড! কাবিননামা নিতে ৩০ হাজার টাকা দাবি মাদক ব্যবসায়ীদের ছুরিকাঘাতে দুই পুলিশ কর্মকর্তা আহত! লালমনিরহাটে বিএনপির বাইসাইকেল র‍্যালিতে মির্জা ফখরুল লালমনিরহাটে অস্ত্রসহ ৪ জন জনতার হাতে আটক।। পুলিশে সোপর্দ

তীব্র শীতের দাপটে কাবু লালমনিরহাটের মানুষ

নতুন বাংলার সংবাদ
  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২২
  • ১৩৬ বার দেখা হয়েছে

আসাদুল ইসলাম সবুজ ॥ লালমনিরহাটে ক’দিন ধরে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি আর তীব্র শীতের দাপটে কাবু সাধারণ মানুষ চরম দুর্ভোগে পড়েছে। প্রায় প্রতিদিনে ব্যাহত হচ্ছে স্বাভাবিক কাজকর্ম। গত ক’দিনের টানা ভারী ও গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিতে সড়ক ও মাঠে-ময়দানে বৃষ্টির পানি জমে আছে।

থেমে থেমে মেঘের গর্জনে বর্ষার আমেজ ঝড়ো হাওয়ায় অনেক স্থানে গাছপালা ভেঙ্গে পড়েছে। বৃষ্টি আর বাতাসের তান্ডবের সাথে তীব্র শীতের দাপটে কাহিল হয়ে পড়েছে সর্বস্তরের মানুষ। এলাকার অর্থকারী ফসল গম, সরিষা, ভুট্রা ও বোর বীজতলার ব্যাপক ক্ষক্ষতি সাধিত হয়েছে। সেই সাথে আলুর ক্ষেতে মড়ক দেখা দিয়েছে। মড়ক আরও বাড়তে পারে কিনা এই নিয়ে চিন্তায় রয়েছেন আলু চাষীরা।

কৃষি আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগার অফিস সূত্রে জানা গেছে, এদিন দুপুর ১২টা পর্যন্ত ২২ মি.লি বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১২ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এদিকে বৃষ্টির কারণে কর্মজীবী মানুষ কাজে বের হতে পারেনি। বিশেষ করে দিনমজুর, মিস্ত্রি ও নির্মাণ শ্রমিকরা ঘর থেকে বের হতে পারেনি। রাস্তাঘাটে যানবাহন ও লোক চলাচল ছিল কম। বিপাকে পড়েছেন দৈনিক আয়ের উপর নির্ভরশীল রিকশা ও ভ্যান চালকসহ নিম্ন আয়ের মানুষরা। এতে দুর্ভোগে পড়েছে গবাদি পশু ও পাখিও।

শ্রমিক নেতা আঃ মজিদ জানান, বৃষ্টির কারণে শ্রমিকরা কাজে আসতে না পারায় ৫টি বিল্ডিংয়ের কাজ বন্ধ রয়েছে। সেই সাথে এতদিন শীত উপেক্ষা করে কাজে বের হতে চাচ্ছে না শ্রমিকরা। ক’দিন ধরে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি আর তীব্র শীতের দাপটে কাবু দিনমজুরা।

কৃষক হাসেম আলী বলেন, এখন বোরো রোপণের ভরা মৌসুম। এতদিন শীত উপেক্ষা করে কাজে বের হয়েছিলাম। বৃষ্টি ও ঠান্ডার কারণে যেতে পারেনি তার মতো অনেক দিনমজুর। সিরসিরি বাতাসের কারণে রাস্তায় রিকশা চালানো যাচ্ছে না। যাত্রীও নেই।

এদিকে বৃষ্টির কারণে আলু ক্ষেতে ছত্রাকের আক্রমণের শঙ্কা দেখা গিয়েছে। ইতোমধ্যে অনেক এলাকায় আলুতে লেট ব্লাইট বা ছত্রাকের আক্রমণ দেখা দিয়েছে।

সদর উপজেলার মহেন্দ্রনগরের কৃষক জোবেদ আলী বলেন, গত কয়েকদিনের শৈত্য প্রবাহের কারণে আমার আলু ক্ষেতে মড়ক দেখা দিয়েছে। বৃষ্টির কারণে মড়ক আরও বাড়ে কিনা এই নিয়ে চিন্তায় পড়েছি। এলাকার শুধু জোবেদ আলী নয়, তার আশপাশে অনেক আলু চাষীর একই অবস্থা।

লালমনিরহাট কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক শামীম আশরাফ জানান, বৃষ্টি ও স্যাঁতস্যাঁতে আবহাওয়া আলুতে ব্লাইটের আক্রমণের জন্য উপযোগী পরিবেশ। আলু চাষিদের এই বৈরী আবহাওয়া সম্পর্কে সজাগ থাকতে হবে এবং একসঙ্গে একাধিক ওষুধ স্প্রে করে ছত্রাকের আক্রমণ ঠেকাতে হবে।
এদিকে কৃষি আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আনিছুর রহমান জানিয়েছেন, মঙ্গলবার জেলায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১২ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আপনার মন্তব্য লিখুন

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2017 notun-bdsangbad
Design & Developed by Freelancer Zone
themesba-lates1749691102