বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ০৪:৪২ অপরাহ্ন

ঈদ কাটছে হাসপাতালে খালেদা জিয়া ও রওশন এরশাদের

নতুন বাংলার সংবাদ
  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ১৪ মে, ২০২১
  • ৭৭ বার দেখা হয়েছে
ছবি: সংগৃহীত

বাংলার সংবাদ ডেস্ক ।। ঈদের দিনে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া এবং সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ।

করোনা পরবর্তী জটিলতায় চিকিৎসা নিতে গত ২৭ এপ্রিল থেকে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন খালেদা জিয়া। এর মধ্যে গত ৩ মে থেকে তিনি সিসিইউতে চিকিৎসাধীন আছেন। ঈদেও তাকে হাসপাতালে থাকতে হচ্ছে।

বার্ধক্যজনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে গত ১ মে থেকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ। তার শারীরিক অবস্থা ভালো হলেও ঈদের দিনও তিনি হাসপাতালে থাকবেন বলে জানা গেছে। ফলে দুই নেত্রীকে হাসপাতালের বেডে শুয়ে ঈদ উদযাপন করতে হচ্ছে।

ঈদের দিন খালেদা জিয়ার সঙ্গে হাসপাতালে তার ভাই শামীম ইস্কান্দার ও দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলামের দেখা করতে যাওয়ার কথা। রওশন এরশাদের সঙ্গে তার ছেলে সাদ এরশাদ নিয়মিত দেখা করতে যান। ঈদের দিনও তিনি দেখা করতে যাবেন।

বিএনপি সূত্রে জানা গেছে, এবার দলটির অধিকাংশ সিনিয়র নেতা ঢাকায় স্বেচ্ছায় হোম কোয়ারেন্টাইনে থেকে নিজ নিজ পরিবারের সঙ্গে ঈদ উদযাপন করবেন। দলটির স্থায়ী কমিটির বেশিরভাগ নেতা করোনা পরবর্তী বিভিন্ন রোগে এখনও ভুগছেন। ভাইস চেয়ারম্যানদের অনেকের একই অবস্থা। ফলে এবারের ঈদে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির নেতাদের বেশিরভাগই নিজ নিজ নির্বাচনীয় এলাকায় ঈদ উদযাপন করতে যাচ্ছেন না।

দলটির নেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আব্দুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, সেলিমা রহমান, ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, ডা. এ জেড এম জাহিদ, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, সাংগঠনিক সম্পাদক এমরান সালেহ প্রিন্সসহ দলের নেতারা ঢাকায় ঈদ করবেন।

বিএনপির নেতারা বলছেন, দেশে বর্তমানে বিধিনিষেধ চলছে। যদিও সরকারের অব্যবস্থাপনার কারণে বিধিনিষেধ সেভাবে কার্যকর হয়নি। অন্যদিকে, দলীয় প্রধান খালেদা জিয়া হাসপাতালে। তার শারীরিক অবস্থা এখন পর্যন্ত সন্তোষজনক নয়। কখন কী ঘটে বলা যায় না। তাকে হাসপাতালে রেখে নেতাদের এলাকায় গিয়ে ঈদ উদযাপন করা দৃষ্টিকটুও দেখায়। ইতোমধ্যে দেশে করোনার ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত হয়েছে। ফলে, নেতাদের বয়স ও শারীরিক অবস্থা বিবেচনায় কেউ ঘর থেকে বের হচ্ছেন না।

এদিকে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের, দলের মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহম্মেদ বাবলু, কো-চেয়ারম্যান রুহুল আমিন হাওলাদারসহ অধিকাংশ নেতা এবার ঢাকায় ঈদ করবেন।

জাপার চেয়ারম্যান জি এম কাদের বলেন, এবার তো এলাকায় যাওয়ার কোনো উপায় নেই। ঢাকায় থাকব। বাসার পাশের মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় করার সম্ভাবনা আছে।

জাপার চেয়ারম্যানের ডেপুটি প্রেস সেক্রেটারি খন্দকার দেলোয়ার জালালী বলেন, জাতীয় পার্টির অধিকাংশ নেতা এবার ঢাকায় ঈদ করছেন। রওশন এরশাদ ঈদে হাসপাতালে থাকছেন। তবে, তিনি শারীরিকভাবে মোটামুটি সুস্থ আছেন।

আপনার মন্তব্য লিখুন

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2017 notun-bdsangbad
Design & Developed by RJ Ranzit
themesba-lates1749691102